Bangla News

পিছিয়ে যাচ্ছে বিএনপির সমাবেশ

তীব্র গরমের কারণে রাজধানীতে বিএনপির পূর্বঘোষিত সমাবেশ পেছানো হচ্ছে। সোমবার (২২ এপ্রিল) ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির দফতর সম্পাদক সাইদুর রহমান মিন্টু সময় সংবাদকে এই তথ্য জানিয়েছে।

সবশেষ গত ২৮ অক্টোবর রাজধানীতে মহাসমাবেশ করেছিল বিএনপি। ফাইল ছবি

 

আগামী ২৬ এপ্রিল (শুক্রবার) নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সমাবেশের ঘোষণা দিয়েছিল ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি। গত ২০ এপ্রিল এ বিষয়ে ডিএমপি কমিশনারকে অবহিত করে চিঠি দেয় তারা।

গ্রীষ্মের উত্তাপে পুড়ছে দেশ। এরমধ্যে বিএনপির ২৬ এপ্রিলের সমাবেশের ঘোষণায় রাজনৈতিক অঙ্গনেও উত্তাপ ছড়ায়। বিএনপির এই ঘোষণার পর একই দিন রাজধানীতে সমাবেশের ডাক দেয় আওয়ামী লীগও। তবে তীব্র গরমের কারণে গত ১৯ এপ্রিল সারা দেশে ৩ দিনের জন্য সতর্কতামূলক হিট অ্যালার্ট জারি করে আবহাওয়া অফিস যা আজ (২২ এপ্রিল) আরও তিন দিন বাড়ানো হয়।

মিন্টু জানান, গরমে সতর্কতামূলক হিট অ্যালার্টের সময় বাড়ানোর কারণে সমাবেশ পেছানোর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

তিনি জানান, এই ইস্যুতে সোমবার (২২ এপ্রিল) বিকেল ৫টায় নয়াপল্টনে বৈঠকে বসছে দলটি। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুস সালাম বৈঠকে সভাপতিত্ব করবেন। এই বৈঠকেই সমাবেশের পরবর্তী তারিখ নির্ধারণ করা হবে।

বিএনপির একটি সূত্র জানিয়েছে, আগামী পহেলা মে শ্রমিক দিবস উপলক্ষে নয়াপল্টনে র‍্যালি ও সমাবেশ করবে বিএনপি। এরপর সুবিধমতো একটি দিন ঠিক করা হবে সমাবেশের জন্য।

গেল বছরের ২৮ অক্টোবর সবশেষ ঢাকায় বড় কর্মসূচি পালন করেছিল বিএনপি। ওইদিন দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে মহাসমাবেশের ডাক দেয় তারা। তবে নজিরবিহীন সহিংসতায় নিহত হন এক পুলিশ সদস্য। গুরুতর আহত হন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বহু সদস্য ও গণমাধ্যমকর্মীরা। আক্রান্ত হয় প্রধান বিচারপতির বাসবভনসহ বেশকিছু স্থাপনা। এসব ঘটনায় করা মামলায় দলের মহসাচিবসহ শীর্ষ পর্যায়ের প্রায় সব নেতাই গ্রেফতার হন তখন। এরমধ্যে গেল ৭ জানুয়ারি বিএনপির অংশগ্রহণ ছাড়াই অনুষ্ঠিত হয় দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন।

নির্বাচনের পরপর মহাসচিবসহ দলের বেশিরভাগ নেতা জামিনে মুক্ত হয়ে আবারও রাজনৈতিক কর্মসূচির মাধ্যমে দলকে চাঙ্গা করার চেষ্টা করছেন। সেই ধারাবাহিকতায় আবারও নয়াপল্টনে সমাবেশের ডাক দিয়েছে বিএনপি।

নেতারা ২৬ এপ্রিলের সমাবেশকে ক্ষমতাসীনদের বিরুদ্ধে এক দফা দাবি আদায়ে গুরুত্বপূর্ণ বলে মনে করছেন।

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খান বলেন, ‌‘আমাদের উদ্দেশ্য একটি, গণতন্ত্র ফেরাতে হবে। আমরা এই সরকারের বিদায় চাই।’

বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক বলেন, ‘জনগণ আমাদের সঙ্গে আছে, তাই সরকার বিদায়ে আমরা কৌশল নির্ধারণ করছি। অধিকার আদায়ে জনগণ সড়কে নামবে, বিএনপি আন্দোলন পরিচালনা করে সরকারকে বিদায় করবে।’

News Desk

I am the Administrator of SOMOY NEWS TV newspaper website. If you want published you own news? So contact me on email: contact@somoynewstv.net

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button